শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
দানোত্তম শুভ কঠিন চীবর দান ২০২০ এর তালিকা বরণ ও বারণের শিক্ষায় সমুজ্জ্বল শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা আগামীকাল প্রবারণা পূর্ণিমা, শুক্রবার থেকে কঠিন চীবর দানোৎসব রামু ট্র্যাজেডির ৮ বছর: বিচার নিয়ে অনিশ্চয়তা প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে প্রার্থনা অনোমা সম্পাদক আশীষ বড়ুয়া আর নেই প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রে ধারন হল বিশেষ আলেখ্যানুষ্টান বৌদ্ধ ধর্মকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হাত মেলালো ভারত-শ্রীলঙ্কা রাঙ্গামাটিতে থাইল্যান্ড থেকে আনিত দশটি বিহারে  বুদ্ধমূর্তি বিতরণ প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে বাঁশখালী উপজেলা প্রশাসনের সাথে মতবিনিময়
কুমিল্লা হোমনায় নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাপ্তি চাকমা

কুমিল্লা হোমনায় নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাপ্তি চাকমা


কুমিল্লার হোমনায় নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে যোগদান করেছেন তাপ্তি চাকমা। তাপ্তি চাকমা এই প্রথম ইউএনও হিসেবে হোমনায় যোগদান করেন।

জানা গেছে, তিনি (তাপ্তি চাকমা) পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলার বাসিন্দা। তিনি খাগড়াছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও খাগড়াছড়ি সরকারী কলেজ থেকে এইচএসসি ও চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ( নৃ বিজ্ঞান বিভাগে) এমএসএস করে ৩১ তম বিসিএস প্রশাসন ক্যাডার হিসেবে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন। পরে ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ে বদলী হন। পরবর্তীতে তিনি ঢাকা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হিসেবে কর্মরত ছিলেন।বাবা খাগড়াছড়ি জেলার তথ্য অফিসার। মা রূপালী ব্যাংকের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার। মা-বাবার পথ অনুসরণ করে মেয়েও এবার নামের শেষে যুক্ত করলেন ‘সরকারি কর্মকর্তা’ পদবি। বলা হচ্ছে মঙ্গল মণি চাকমা, সারগরিকা খীসা ও তাঁদের মেয়ে তাপ্তি চাকমার কথা।
খাগড়াছড়ির খবংপুড়িয়ায় জন্ম নেওয়া এই সুকন্যার শৈশব, কৈশোর ও বেড়ে ওঠা চট্টগ্রামেই। মাধ্যমিক পর্যায়ে পড়ালেখা করেছেন খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ে আর উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে পড়েছেন খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে। এরপর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগ থেকে। বেশ কৃতিত্বপূর্ণ শিক্ষাজীবনই বলা চলে। কিন্তু তাপ্তি বলেন ভিন্ন কথা, ‘পুরো শিক্ষাজীবনে আমার বড় রকমের কোনো কৃতিত্ব নেই। তবে সাফল্য আছে বলতে পারেন। আহামরি ফলাফল করতে না পারলেও কখনো বিফল হইনি। মধ্যম মানের ফলাফল ধরে রেখেছি সব সময়।’
সেই মধ্যম মানের শিক্ষার্থী তাপ্তি চাকমাই কর্মজীবন কীভাবে শুরু করলেন সেরা সাফল্য দিয়ে। ৩১তম বিসিএস পরীক্ষায় চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ হয়ে যোগ দিয়েছেন প্রশাসন ক্যাডারে। টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার পদে শুরু হয় তাঁর কর্মজীবন।
যদিও তাপ্তির প্রবল ইচ্ছা ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়ার, সে পথে কাঠখড়ও পুড়িয়েছেন বিস্তর; কিন্তু শেষ পর্যন্ত হতে পারেননি বলে মনে খেদ নেই তাঁর। তিনি মনে করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হতে না পারাটা তাঁর জন্য বরং শাপেবরই হয়েছে। কে জানে, শিক্ষক হলে হয়তো বিসিএস ক্যাডার হওয়া হতো না! বলছিলেন তাপ্তি চাকমা।

Facebook Comments

শেয়ার করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *





© All rights reserved © 2018 tathagataonline.net
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com
error: কপি করার চেষ্ঠা না করে নিজের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ করুন
Don`t copy text!